১০ মাসে সোনামসজিদ স্থলবন্দরে রাজস্ব আয় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১শ ১৯ কোটি টাকা বেশি।

বুধবার ঃঃ ১১.০৫.২০১৭
চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দরে ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের গত ১০ মাসে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। গত ১০ মাসে লক্ষমাত্রার চেয়ে ১শ ১৯ কোটি ৩২ লাখ ৮৭ হাজার টাকা। স্থলবন্দর সুত্রে জানা গেছে- ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের সোনামসজিদ স্থলবন্দরে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা ছিল ৩৬৮ কোটি ৫৬ লাখ ৮২ হাজার টাকা। এর মধ্যে জুলাই থেকে মার্চ অর্থাৎ প্রথম ৯ মাসে রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩৩৭ কোটি ৬৮ লাখ ৬২ হাজার টাকা। এর বিপরীতে রাজস্ব আদায় হয়েছে ৪৫৭ কোটি ০১ লাখ ৪৯ হাজার টাকা। লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করেও অতিরিক্ত রাজস্ব আদায় হয়েছে ১শ ১৯ কোটি ৩২ লাখ ৮৭ হাজার টাকা। চলতি অর্থ বছরের এখনও ২ মাস বাকী থাকতেই লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাওয়ার পেছনে কাস্টমস দূর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স কাজ করেছে বলে সোনামসজিদ স্থলবন্দর বাস্টমস অফিস মনে করছে।
রাজস্ব বৃদ্ধি পাওয়ায় উত্তরাঞ্চলের সর্ববৃহত এ স্থলবন্দরটি পুরোনো ঐতিহ্য আবারো ফিরে পেতে চলেছে।
কাস্টমস কর্মকর্তারা বলছেন, ভারত থেকে আমদানিকৃত ফলবাহী ট্রাক শতভাগ কায়িক পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়। ফলে রাজস্ব আয় বেড়েছে। বাণিজ্যিক পণ্য চালানের ক্ষেত্রে জিরো পয়েন্ট থেকে পণ্যবাহী ট্রাকগুলো সরাসরি ওজন করার জন্য স্কেলে নেওয়া হয়। এসব পদক্ষেপ নেওয়ার কারণে পণ্যবাহী ট্রাকের ওজনে কারচুপি কমেছে। এব্যাপারে সোনামসজিদ স্থলবন্দরে কর্মরত কাস্টমসের সহকারী কমিশনার সাইদুল আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ভারত থেকে আমদানিকৃত প্রতিটি পণ্যের চালান যাচাই-বাছাই করে পণ্য খালাস দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া পণ্যবাহী ট্রাকগুলোর ওজন কঠোরভাবে তদারকি করা হচ্ছে। যে কারণে রাজস্ব আদায় দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তিনি আরও জানান, কাস্টমসের এ ধারা অব্যাহত থাকলে চলতি অর্থবছরে বাকি ২ মাসে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অনেক বেশি রাজস্ব আদায় করা যাবে।

Check Also

জেলাশহরে গাড়িতে করে ন্যায্যমূল্যে মুরগি ডিম ও দুধ বিক্রি শুরু

১২ এপ্রিল সোমবার, ২০২১। করোনা পরিস্থিতিতে জনসাধারণের প্রাণিজ পুষ্টি নিশ্চিতকরণে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরে ভ্যান ও ট্রাকে …