বিভাগীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করলেন জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক

রবিবার :: ২৯.১২.২০১৯।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক রাজশাহী বিভাগে শ্রেষ্ঠ জেলা প্রশাসক মনোনীত হয়েছেন। প্রাথমিক শিক্ষায় বিশেষ অবদান রাখায় তাকে শ্রেষ্ঠ জেলা প্রশাসক হিসেবে মনোনীত করা হয়। বাছাই কমিটি, রাজশাহী বিভাগ এর সভাপতি ও সদস্য সচিব স্বাক্ষরিত এক পত্রে এ তথ্য জানা গেছে। এদিকে এ জেড এম নূরুল হক শ্রেষ্ঠ জেলা প্রশাসক নির্বাচিত হওয়ায় আজ সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে তাঁর সহকর্মীসহ অনেকেই তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক গৌড় বাংলাকে বলেন- বিভাগীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন একদিকে যেমন সম্মানের অন্যদিকে তেমনি আমার কর্মক্ষেত্রে দায়িত্ব আরো বাড়িয়ে দিল। অতীতে যেমন আমার সহকর্মীদের নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়নে কাজ করেছি ভবিষ্যতে আরো ভালো করার চেষ্টা করব। এ সময় তিনি প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সকলকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করার জন্য আহŸান জানান।
বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস প্রশাসন ক্যাডার ২০তম ব্যাচের সদস্য এ জেড এম নূরুল হক ২০১৮ সালের ১১ আগস্ট জেলা প্রশাসক হিসেবে চাঁপাইনবাবগঞ্জে যোগদান করেন। এখানে যোগদানের আগে তিনি সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন।
যোগদানের পর থেকেই জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক শিক্ষার মান উন্নয়নে কাজ শুরু করেন। বিশেষ করে প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়নে তিনি প্রতিটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মনিটরিংয়ের আওতায় নিয়ে আসার চেষ্টা করেন এবং সফল হন। সরকারি কর্মকর্তাদের প্রধান করে বেশ কয়েকটি মনিটরিং টিম বিভিন্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করে প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। এ সময় তারা বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার পরিবেশ, ছাত্রছাত্রীদের উপস্থিতি, পাঠদান পদ্ধতি, শিক্ষকদের উপস্থিতি, শিক্ষক স্বল্পতাসহ বিভিন্ন সমস্যা তুলে আনেন। শুধু প্রাথমিক শিক্ষাই নয়-মাধ্যমিক শিক্ষার মান উন্নয়নে তিনি কাজ করে চলেছেন। দুই সন্তানের জনক এ জেড এম নূরুল হকের জন্ম হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায়। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে ¯œাতকোত্তর সম্পন্ন করার পর যুক্তরাজ্যের একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে এমএস-সি ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি।
সদা হাসিখুশি ও প্রাণচঞ্চল এই মানুষটি জৈন্তাপুর উপজেলায় সহকারী কমিশনার (ভূমি); জামালপুর জেলায় প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেট; গোপালগঞ্জ, কুলাউড়া ও সখীপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবেও কর্মরত ছিলেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জকে সামনে এগিয়ে নিতে নিরন্তর পরিশ্রম করছেন তিনি। আমকে বিশ্বদরবারে নিয়ে যাওয়ার জন্যও চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন এ জেড এম নূরুল হক। শুধু তাই নয়, চাঁপাইনবাবগঞ্জে সেবা প্রদানে মান ও গতি বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রতি বুধবার গণশুনানির আয়োজন করছেন। শুনানিতে অংশগ্রহণকারী নাগরিকরা তাদের বিভিন্ন সমস্যা জেলা প্রশাসকের কাছে তুলে ধরেন এবং জেলা প্রশাসক সমস্যাগুলো শুনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।
উল্লেখ্য, এবার ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান মিলিয়ে ২১ জন বিভাগীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ মনোনীত হয়েছেন। এদের মধ্যে জেলা প্রশাসক হিসেবে এ জেড এম নূরুল হক ছাড়াও প্রতিষ্ঠান হিসেবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পিটিআই এবং গোমস্তাপুর উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর মোহা. আবুল কাসেম শ্রেষ্ঠ ইউআরসি/টিআরসি ইন্সট্রাক্টর মনোনীত হয়েছেন।

Check Also

জেলাশহরে গাড়িতে করে ন্যায্যমূল্যে মুরগি ডিম ও দুধ বিক্রি শুরু

১২ এপ্রিল সোমবার, ২০২১। করোনা পরিস্থিতিতে জনসাধারণের প্রাণিজ পুষ্টি নিশ্চিতকরণে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরে ভ্যান ও ট্রাকে …