‘ফজলি আমের উপাখ্যান’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জের ফজলি আমের জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়া, লেখক, গণমাধ্যম ও গণমাধ্যমকর্মী, বিভিন্ন সংগঠন তথা জেলাবাসীর আন্দোলনের ফসল। সেদিন জেলার মানুষ আন্দোলন না করলে এই স্বীকৃতি রাজশাহীর ঘরেই থেকে যেত। তবে শুরুতেই জোরালো আন্দোলন করা গেলে পুরোপরি এর কৃতিত্ব চাঁপাইনবাবগঞ্জের ঘরেই উঠত।
সোমবার লেখক ও গবেষক জাহাঙ্গীর সেলিমের লেখা জিআই পণ্য ‘ফজলি আমের উপাখ্যান’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তারা এমন মন্তব্য করেন। বক্তারা আম নিয়ে এমন একটি বই লেখার জন্য জাহাঙ্গীর সেলিমকে ধন্যবাদ জানান এবং অন্যান্য বিষয়ে লেখার জন্য অনুরোধ জানান।
‘বই হোক নিত্যসঙ্গী’- এই প্রতিপাদ্যে আয়োজিত মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমীন, নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের উপাধ্যক্ষ ড. আমিনুল ইসলাম, বৃক্ষপ্রেমিক কার্তিক প্রামানিক, কৃষি উদ্যোক্তা জাহাঙ্গীর আলম শাহ।,
নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজ মিলনায়তনে বরেন্দ্র কৃষি উদ্যোগের সহায়তায় এই বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের আয়োজনা হয়।
বরেন্দ্র কৃষি উদ্যোগের পরিচালক মুনজের আলম মানিকের সঞ্চালনায় মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে নিজের অভিব্যক্তি তুলে ধরে বক্তব্য দেন লেখক জাহাঙ্গীর সেলিম। অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য দেন- প্রবীণ সাংবাদিক সামসুল ইসলাম টুকু, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চাঁপাইনবাবগঞ্জের উপপরিচালক ড. পলাশ সরকার, প্রয়াস মানিবক উন্নয়ন সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক হাসিব হোসেন, আমচাষি আহসান হাবিব, আইনজীবী রেহানা বীথিসহ অন্যরা।
পরে উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালক রায়হানুল ইসলাম লুনা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আবু বাক্কার সিদ্দিক, প্রয়াস মানিবক উন্নয়ন সোসাইটির কনিষ্ঠ সহকারী পরিচালক আব্দুস সালাম ও মু. তাকিউর রহমানসহ অন্যরা।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top