চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের ত্রিবার্ষিক নিবার্চনের ভোটগ্রহন সম্পন্ন

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ট্রাক, ট্যাংকলরি ও কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন ২০২৪ অনুষ্ঠিত হয়েছে। উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট দিয়েছেন জেলা পরিবহন শ্রমিকরা। শনিবার জেলা আইনজীবী সমিতি ভবনে ভোটগ্রহণ করা হয়। রাত সাড়ে ৮ টায় এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ভোট গণনা চলছিল।
এদিকে শনিবার বিকেলে ভোট কেন্দ্রে দেখা যায়, জেলা শহরের অক্ট্রয় মোড় থেকে শুরু করে ভোট কেন্দ্রের আশপাশ প্রার্থীদের পোস্টার, ফেস্টুন ও ব্যানারে ছেয়ে আছে। প্রার্থীদের নির্বাচনী কার্যালয়ে কর্মীসমর্থকদের উপচে পড়া ভিড়। ভোট কেন্দ্রের অদূরে অনেকের কর্মীরা কেউ ভেপু বাজাচ্ছেন তো কেউ হাত মাইকে নিজনিজ প্রার্থীর পক্ষে ভোট চায়ছেন। অনেকেই আবার স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত করে তুলছেন জেলা প্রশাসকের কার্যালয় এলাকা। গোটা শহর শ্রমিকদের সরব উপস্থিতিতে মুখরিত হয়ে ওঠে। সেøাগান, চিৎকার, হৈ চৈ সব মিলিয়ে এক অন্যরকম পরিবেশ তৈরি হয় গোটা এলাকা। প্রার্থীদের নির্বাচনী কার্যালয়ে অনেককেই বসে থাকতে দেখা যায়, আবার কেউ কেউ বাইরে থেকে শেষ চেষ্টা চালিয়ে যান।
দুপুরের পর বাড়তে থাকে ভোটারদের উপস্থিতি। এবার ভোট কেন্দ্রে স্থাপন করা হয় সিসি ক্যামেরা।
যে কোনোধরনের অপ্রীতকর ঘটনা এড়াতে আদালত এলাকা নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে রাখে পুলিশ।
নির্বাচনকে ঘিরে শনিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জের সকল রুটে বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়। ফলে যাত্রীদের বিকল্প ব্যবস্থায় যাতায়াত করতে হয়।
শান্তিপূর্ণ এবং উৎসব মুখর পরিবেশে ভোটাররা নির্বিঘেœ ভোট প্রদান করছেন উল্লেখ করে প্রধান অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম রেজা জানান,
সংগঠনটির কার্যনির্বাহী কমিটির ১৯টি পদের বিপরীতে ৫৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
এর মধ্যে সভাপতি পদে বতর্মান সভাপতি মো. আইয়ুব আলী, সাবেক সভাপতি মো. সাইদুর রহমান ও সাবেক সভাপতি মো. শহীদুল ইসলাম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। অন্যদিকে সাধারণ সম্পাদক পদেও তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেনন। তারা হলেনÑ বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল খালেক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. আনারুল ইসলাম আনার ও সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সাহাবুল হক।
এছাড়া সিনিয়র সহসভাপতি পদে ৩ জন, সহসভাপতি পদে ৩ জন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে ৫ জন, সহসম্পদক পদে ২ জন, কোষাধ্যক্ষ পদে ৩ জন, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ৪ জন, ক্রীড়া সম্পাদক পদে ৪ জন, দপ্তর সম্পাদক পদে ৪ জন, প্রচার সম্পাদক পদে ৩ জন ও সড়ক সম্পাদক পদে ৮ জন এবং কার্যনির্বাহী সদস্য পদে ১০ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ১৯টি পদের মধ্যে সড়ক সম্পাদকের পদ হচ্ছে ৪টি ও কার্যনির্বাহী সদস্যের পদ ৪টি।
এসব তথ্য নিশ্চিত করে এই নির্বাচনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম জানান, শনিবার সকাল সাড়ে ৮টা হতে বিকেল ৪টা পর্যন্ত জেলা আইনজীবী সমিতি ভবনে বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ করা হবে। গণনা শেষে ভোট কেন্দ্রে বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করা হবে এবং ১০ মার্চ রবিবার বিকেল ৫টায় শ্রমিক ভবনে চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করা হবে। এবার নির্বাচনে ভোটার রয়েছেন ৪ হাজার ৪৬৫ জন।

Scroll to Top