চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৩ জনের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার

আগামী ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁপাইনবাবগঞ্জের তিনটি আসনে অংশ নেয়া প্রার্থীদের মধ্যে থেকে ৩ জন তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। রবিবার (১৭ ডিসেম্বর) প্রত্যাহারের শেষ দিনে তারা তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেন। প্রত্যাহার করা প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ (শিবগঞ্জ) আসন থেকে জাকের পার্টির মো. আব্দুর রহিম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (নাচোল-গোমস্তাপুর-ভোলাহাট) আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী খুরশিদ আলম বাচ্চু ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (সদর) আসন থেকে জাকের পার্টির প্রার্থী বাবলু হোসেন। জেলা নির্বাচন অফিসার মো. নজরুল ইসলাম এই তথ্য জানিয়েছেন। প্রত্যাহারের পর শিবগঞ্জ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় টিকে থাকলেন ৭ জন প্রার্থী। তারা হলেনÑ আওয়ামী লীগ মনোনীত জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, ২০১৪-২০১৮ মেয়াদে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ও শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি এবং কানসাটে বিদ্যুৎ আন্দোলনের নেতা গোলাম রাব্বানী, জাতীয় পার্টির অধ্যাপক আফজাল হোসেন, বিএনএফ’র নুরুল ইসলাম জেন্টু, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট’র নবাব মো. শামসুল হোদা এবং এনপিপি’র আব্দুল হালিম।
অন্যদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে ভোটের লড়াইয়ে রইলেন ৫ জন। তারা হলেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, মু. জিয়াউর রহমান এমপি, স্বতন্ত্র প্রার্থী গোমস্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক এমপি গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস, বাংলাদেশ কংগ্রেসের আব্দুল্লাহ আল মামুন, বিএনএফ মনোনীত আজিজুর রহমান ও জাতীয় পার্টির পার্থী মো. আব্দুর রশিদ ।
এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (সদর) আসনে ভোটযুদ্ধ করবেন ৪ জন প্রার্থী। তারা হলেনÑ আওয়ামী লীগের প্রার্থী চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ, বিএনএম মনোনীত চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র মাওলানা আব্দুল মতিন, এনপিপি’র মো. নাহিদ আহম্মেদ ও বিএনএফ’র কামরুজ্জামান খান।
জেলা নির্বাচন অফিসার মো. নজরুল ইসলাম জানান, গত ১৫ নভেম্বর প্রধান নির্বাচন কমিশনার নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন। তফসিল অনুযায়ী, নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়ন ফরম দাখিলের শেষ দিন ছিল গত ৩০ নভেম্বর। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হয় ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর, মনোনয়নের আপিল ও নিষ্পত্তি হয় ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল আজ (গতকাল রবিবার)।
তিনি আরো জানান, সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে এবং এরপরই প্রার্থীরা নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করতে পারবেন। নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত চলবে এবং নতুন বছরের ৭ জানুয়ারি ভোটগ্রহণের মধ্যদিয়ে সম্পন্ন হবে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন।
জেলা নির্বাচন অফিসার জানান, এ জেলায় এবার মোট ভোটার রয়েছেন ১৩ লাখ ৫৩ হাজার ৩২১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৬ লাখ ৮৩ হাজার ৪৭৮ জন ও মহিলা ভোটার ৬ লাখ ৬৯ হাজার ৮৪৩ জন। ভোট কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে ৫১২টি, নতুন ভোট কেন্দ্র ৪৫টি এবং ভোটকক্ষ ৩ হাজার ৭৮টি ও অস্থায়ী ভোটকক্ষ ১৫১টি।
এর মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ (শিবগঞ্জ) আসনে মোট ভোটার রয়েছেন ৪ লাখ ৭২ হাজার ২৮৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৪১ হাজার ৮৫৯ জন ও মহিলা ভোটার ২ লাখ ৩০ হাজার ৪২৩ জন। ভোট কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫৮টি। ভোটকক্ষ ১ হাজার ৪৩টি এবং অস্থায়ী ভোটকক্ষ ৭৮টি।
অন্যদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে মোট ভোটার রয়েছেন ৪ লাখ ৩১ হাজার ৭১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ১৪ হাজার ৩৫৬ ও মহিলা ভোটার ২ লাখ ১৬ হাজার ৭১৫ জন। ভোট কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে ১৮২টি, নতুন ভোট কেন্দ্র ২৩টি এবং ভোটকক্ষ ৯৯৩টি ও অস্থায়ী ভোটকক্ষ ৩৩টি।
এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (সদর) আসনে মোট ভোটার রয়েছেন ৪ লাখ ৪৯ হাজার ৯৬৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ২৭ হাজার ২৬৩ জন ও মহিলা ভোটার ২ লাখ ২২ হাজার ৭০৫ জন। মোট ভোট কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে ১৭২টি, নতুন ভোট কেন্দ্র ২২টি এবং ভোটকক্ষ ১ হাজার ৪২টি ও অস্থায়ী ভোটকক্ষ ৪০টি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top