গাজায় ত্রাণ সহায়তা নিয়ে জাতিসংঘে প্রস্তাব পাস

ফিলিস্তিনের গাজায় ত্রাণ সরবরাহের সুযোগ করে দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে একটি প্রস্তাব পাস হয়েছে। শুক্রবার প্রস্তাবটি ১৩-০ ভোটে পাস হয়। নিরাপত্তা পরিষদের মোট ১৫ দেশের মধ্যে ১৩টি প্রস্তাবটির পক্ষে ভোট দিলেও; ভোটদানে বিরত ছিল যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া। আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, নিরাপত্তা পরিষদে প্রস্তাবটি তুলেছিল সদস্যদেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত। প্রথমে তাতে ‘অবিলম্বে লড়াই বন্ধের’ আহ্বানের কথা বলা হয়েছিল। তবে গত কয়েক দিনে যুক্তরাষ্ট্রের চাপের মুখে প্রস্তাবের ভাষায় বেশ কাটছাঁট করা হয়েছে। শেষ পর্যন্ত গতকাল পাস হওয়া প্রস্তাবে ‘লড়াই বন্ধের আহ্বান’- কথাটি এড়িয়ে ‘লড়াই বন্ধে উপযুক্ত পরিস্থিতি তৈরির’ আহ্বান জানানো হয়েছে। ভাষার এইসব সংশোধনীতে প্রস্তাবনাটি দুর্বল হয়ে পড়ায় নিরাপত্তা পরিষদের কয়েকটি সদস্যদেশ হতাশা প্রকাশ করেছে। এক সপ্তাহ ধরে ঝুলে থাকার পর প্রস্তাবটি পাস হলেও; এতে যুদ্ধ থামানোর কথা না বলায়, এর মাধ্যমে গাজায় ইসরায়েলের হামলা বন্ধ হওয়ার সম্ভাবনা নেই। নিরাপত্তা পরিষদের অন্যতম স্থায়ী সদস্য রাশিয়া বলেছে, এই প্রস্তাব একটি ‘দন্তহীন’ ও ‘অক্ষম’ প্রস্তাব। জাতিসংঘে দেশটির রাষ্ট্রদূত লানা জাকি নুসেইবেহ বলেছেন, ‘আমরা জানি প্রস্তাবের ভাষাটা একদমই যথাযথ নয়। মানবিক যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানানো থেকে আমরা কখনোই বিরত থাকব না।’ গত ৭ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া যুদ্ধে ইসরায়েলি হামলায় গাজায় এখন পর্যন্ত অন্তত ২০ হাজার ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top