৫ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২০শে জুলাই, ২০১৯ ইং | ১৭ই জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী | শনিবার | বিকাল ৩:৫৮ | বর্ষাকাল
সর্বশেষ সংবাদ
Bangla Font Problem?

মেধা, মনন, সম্পদে সমৃদ্ধ দেশ গড়ার প্রত্যয়ে শুরু হয়েছে ‘যুব সম্মেলন ২০১৯’

রবিবার :: ০৭.০৪.২০১৯।

‘তোরা সব জয়ধ্বনি কর’ স্লোগান নিয়ে শুরু হলো দুই দিনব্যাপী ‘যুব সম্মেলন ২০১৯’। আজ দেশের শীর্ষ উন্নয়ন সংস্থা পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউ-েশন (পিকেএসএফ) ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এই সম্মেলনের আয়োজন করে। আয়োজিত সম্মেলনের উদ্বোধন করেন, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, এমপি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ, পিকেএসএফ-এর চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ, স্বাগত বক্তব্য রাখেন পিকেএসএফ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আব্দুল করিম এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মোঃ জসীম উদ্দিন।
অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ বলেন, গত এক দশকে বাংলাদেশের যে অভাবনীয় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি সাধিত হয়েছে, তার পেছনে তরুণ-যুবদের সক্রিয় ও উৎসাহব্যঞ্জক অংশগ্রহণ ছিলো। বর্তমান সরকার রাষ্ট্রের অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি মানবিক সমাজ গঠনে কাজ করছে বলে উল্লেখ করেন তথ্যমন্ত্রী। পিকেএসএফ তার কার্যক্রমের মাধ্যমে যুব সমাজের প্রতিটি সদস্যকে দায়িত্বশীল নাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে সহায়তা করবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে পিকেএসএফ-এর চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, তৃণমূল পর্যায়ে যুব নারী ও পুরুষের নৈতিকতার উন্নয়ন, নেতৃত্ব বিকাশ ও টেকসই-কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে পিকেএসএফ কাজ করে যাচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ একটি সমৃদ্ধ, মর্যাদাশীল সমাজ গঠনে পিকেএসএফ শক্তি ও সামর্থ্য যুগিয়ে যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
স্বাগত বক্তব্যে পিকেএসএফ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আবদুল করিম যুবদের আত্ম-উপলব্ধি, সচেতনতা বৃদ্ধি ও স্বাধীনতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে নিজেদের গড়ে তোলার আহ্বান জানান। যুব সমাজকে ‘জাতীয় পুঁজি’ আখ্যায়িত করে, সাবেক এই মূখ্যসচিব বলেন, যুব উন্নয়নে পিকেএসএফ তৃণমূল পর্যায়ে কাজ করে যাবে এবং দারিদ্র্য কখনো যুবদের উন্নয়নের এই অগ্রযাত্রায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারবে না।
যুব সমাজকে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সম্পদ উল্লেখ করে পিকেএসএফ-এর উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. জসীম উদ্দিন বলেন, পিকেএসএফ যুবদের নৈতিক উন্নয়ন, নেতৃত্ব বিকাশ ও টেকসই কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে ‘উন্নয়নে যুব সমাজ’ শীর্ষক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। এই কার্যক্রম সমাজে নবজাগরণ সৃষ্টি করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
উল্লেখ্য সারাদেশের মাঠপর্যায় থেকে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে নির্বাচিত প্রায় ১,৬০০ যুব প্রতিনিধির অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত এই সম্মেলনের প্রথম দিনে দু’টি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম সেমিনারে ‘বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ’, ‘বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থা’ এবং ‘দক্ষতা উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান’, এবং দ্বিতীয় সেমিনারে ‘সামাজিক ব্যাধি: বাল্যবিবাহ, যৌতুক, মেয়েদের উত্যক্তকরণ ও মাদকাসক্তি’, ‘সহিংসতা ও সন্ত্রাসবাদ’ ও ‘সাম্য ও মানব মর্যাদা’ বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন তৃণমূল থেকে আসা যুবরা। প্রথম সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ এবং দ্বিতীয় সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।
এছাড়াও অনুষ্ঠানে ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ রচিত “বাংলাদেশ আমার ঠিকানা” ও “ওই মহামানব” শীর্ষক দু’টি কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। প্রথম দিনের আয়োজন শেষ হয় জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘জলের গান’-এর মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক পরিবেশনার মাধ্যমে। আগামীকাল সকাল সাড়ে ৯টায় যুবদের দৃষ্টিতে: আর্থ-সামাজিক বৈষম্য; জলবায়ু পরিবর্তন এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপিত হবে। যেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আবুল কালাম আজাদ, মূখ্য সমন্বয়ক (এসডিজি), প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। সেমিনারের পর দুই দিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত ‘যুব সম্মেলন-২০১৯’-এর সমাপনী অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে এ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া, মাননীয় ডেপুটি স্পিকার, জাতীয় সংসদ এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সিমিন হোসেন রিমি, সভাপতি, সংস্কৃতি মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। বিষয়টি প্রেসবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে নিশ্চিত করেছে পিকেএসএফ।

মন্তব্য দেয়া বন্ধ রয়েছে।

একদম উপরে যান